বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন [gtranslate]
Headline
Headline
আমতলীতে সপ্তাহব্যাপী হাঁস-মুরগি পালন বিষয়ক ভ্রাম্যমাণ প্রশিক্ষণ শুরু পটিয়ায় ক্বলবে কুরআন আলো ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কুরআন প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন ঝালকাঠিতে বাস চাপায় ব্যবসায়ী নিহত টাঙ্গাইলের মধুপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ আমতলীতে সাংসদ গোলাম সরোয়ার টুকু’র গণ সংবর্ধনা ও পৌর পরিষদের অভিষেক মান্দায় মরা গরু বিক্রয়ের তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক লাঞ্ছিত থানায় অভিযোগ চৌদ্দগ্রামে সাংবাদিক এম এ কুদ্দুসের মায়ের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন আমতলীতে হাওয়া বিবি নাইট শ্যাডো ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত শ্রীপুরে ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলীকে গুলি করে হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন রূপগঞ্জে বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত ভৈরব নদে ৬৮৫ মেট্রিক টন কয়লাবোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবি গাজীপুর সদর প্রেসক্লাবে বাংলা নববর্ষ উৎযাপন পীরগঞ্জে ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ দুই জন গ্রেফতার ঝালকাঠির নবগ্রাম ছফেদিয়া দাখিল মাদ্রাসার পূণর্মিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত রামপালে আনন্দ উল্লাসে বাংলা নববর্ষ উদযাপন শুভ বার্তা নিয়ে এলো শুভ নববর্ষ সেই সঙ্গে শুভ জন্মদিন বাংলা নববর্ষে পটুয়াখালী জেলা বাসীকে শুভেচ্ছা পটিয়ার ওয়াহেদ আলী চৌধুরী সহ পাড়ার সকল মুরব্বিদের বার্ষিক ফাতেহা শরীফ ঈদ পুনর্মিলনী কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত বাগবাজার সার্বজনীন দুর্গোৎসব প্রাঙ্গনে আয়োজিত , ১লা পার্বণ ও প্রদর্শনী সিপিএল নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সর্দ্দারপাড়া পারচৌপুকুরিয়া দুর্গাপুর
কোন ভবনেই পানি ও ময়লা জমিয়ে রাখা যাবেনা,মন্ত্রী তাজুল ইসলাম
/ ১৫২ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১, ৬:০৫ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টার : মোঃ ইকবাল মোরশেদ:
সরকারি বা বেসরকারি দেই কোন প্রতিষ্ঠান হোক না কেন নির্মাণাধীন বা পরিত্যক্ত ভবনে পানি জমিয়ে রাখলে আইনগত ব্যবস্থা নয়া হবে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী,

আজ ৮ই জুলাই, ২০২১ইং,রোজ বৃহ:পতিবার।
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, সরকারি-বেসরকারি যে প্রতিষ্ঠানই হোক না কেন নির্মাণাধীন, পরিত্যক্ত বা যেকোন ভবনে পানি জমিয়ে রেখে ডেঙ্গু প্রজননে সহায়ক ভূমিকা রাখলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে দু-একদিনের মধ্যেই ঢাকা উভয় সিটি কর্পোরেশনে ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে জোরালোভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে। এছাড়া, আগামী সোমবার এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে জরুরী সভা ডাকা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।

তিনি আজ (বৃহ:পতিবার) সরকারি বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে এক জরুরি মতবিনিময় কালে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, নির্মাণাধীন ও পরিত্যক্ত ভবন অথবা বাসার ছাদ, আঙিনা, ফুলের টব, ফ্রিজ-এয়ারকন্ডিশনে কোন অবস্থাতেই যেন জমা পানি না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কারণ তিন দিনের বেশি জমানে পানিতে মশা প্রজনন হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

নির্মাণাধীন এবং পরিত্যক্ত ভবনই হচ্ছে এডিস মশার প্রধান ঊর্বর জায়গা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এসব জায়গায় জমানো পানিতে লার্ভিসাইড অথবা দশ হাজার স্কয়ার ফিট জায়গায় আড়াই শো গ্রাম কেরোসিন ঢেলে দিয়ে মশার প্রজনন ধ্বংস করা সম্ভব।

এ প্রসঙ্গে মো. তাজুল ইসলাম বলেন, মানুষকে বার বার এসব বিয়য়ে সচেতন করার পরেও অনেকে আমলে নিচ্ছেন না। তাই উভয় সিটি কর্পোরেশনে দশ জন করে ম্যাজিস্ট্রেট পদায়ন করা হয়েছে এবং আগামীকাল থেকে তারা অভিযান পরিচালনা করবে। যারা নির্দেশনা অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন বা জরিমানা করবেন।

সরকারি নির্দেশনা অনেক সরকারি প্রতিষ্ঠানও মানছে না এমন এক প্রশ্নের উত্তরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, সরকারি বা বে-সরকারি যে প্রতিষ্ঠানই হোক নির্মাণাধীন বা পরিত্যক্ত অথবা ব্যবহার করা ভবন যেখানেই হোক পানি জমিয়ে রেখে এডিস মশা প্রজননে ভূমিকা রাখলে আইন আনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। জনগণের জান-মাল ক্ষতিগ্রস্ত করার কোন অধিকার আমার, আপনার কারোরই নেই।

তিনি জানান, ২০১৯ সালের ডেঙ্গুর মারাত্মক ভয়াবতার তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ায় ২০২০ সালে ডেঙ্গুর প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়েছিলো। এবছরও মন্ত্রণালয় থেকে পর্যাপ্ত লোকবল, কীটনাশক, ফগিং মেশিন এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাজিস্ট্রেট পদায়ন করা হয়েছে।

মন্ত্রী তাজুল ইসলাম আশা প্রকাশ করে বলেন, সবাই মিলে এক সাথে কাজ করলে এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। জনগণকে এ ব্যাপারে সচেতন করার জন্য ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। উভয় সিটি কর্পোরেশনের মেয়র অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে কাজ করছেন বলেও জানান তিনি।

মন্ত্রী নিজে অনেক নির্মাণাধীন ভবন, বাসা-বাড়ি পরিদর্শন করেছেন বলে উল্লেখ করে বলেন এখন দরকার মানুষের সচেতনতা।
সচেতন না হলে প্রতিরোধ করা কঠিন হবে,শুধু অভিযান চালিয়ে মশা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য, এবছরের জানুয়ারি থেকে এ মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ৫৩৬ জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। উত্তর সিটি কর্পোরেশনের তুলনায় দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে এডিস মশার প্রকোপ একটু বেশি বলে তথ্য পাওয়া গেছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Our Like Page
April 2024
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031