বুধবার, ০৭ জুন ২০২৩, ০৬:১৮ অপরাহ্ন
Headline :
রূপগঞ্জে ঘণ্টায় ঘণ্টায় বিদ্যুৎতের লোডশেডিং, জনজীবন অতিষ্ঠ ঝালকাঠিতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৭ লক্ষ টাকা জরিমান মাদারীপুরে দেশীয় প্রজাতির মাছ ও শামুক সংরক্ষণ অভয়াশ্রমের উদ্বোধন করলেন – জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মারুফুর রশীদ খান, নওগাঁর রাণীনগরে ভিক্ষুকদের মাঝে চার্জার ভ্যানগাড়ি ও ছাগল বিতরণঃ ঝিকরগাছায় ৩৭প্রকার দেশীয় ফল দিয়ে কিন্ডারগার্টেন স্কুলের মধুমাসের ফল উৎসব সরকারি নীতিমালা উপেক্ষা করে ঝিকরগাছায় প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান থাকার পরও ম্যানেজ প্রক্রিয়ায় চেয়ারে বসেছে আনারুল ইসলাম প্রযুক্তি সম্পর্কে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে গড়ে তুলতে হবে-পলক পটিয়ার ছনহরা ইউনিয়নের ২ ও ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগের সম্মেলনে-মুহাম্মদ ছৈয়দ তূণমূন ও ত‍্যাগী আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মূল‍্যায়ন করা হবে মধুপুরে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত রামপালে চোরাই নছিমনসহ চোর চক্রের মূল হোতা গ্রেফতার ঝালকাঠিতে ফোন কিনে না দেওয়ায় অভিমান করে কিশোরের আত্মহত্যা ঢাকা-রূপগঞ্জ-কালীগঞ্জ সড়কের রূপগঞ্জ অংশের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ট্রেনের নাম পূর্ণবহালের দাবিতে সড়ক অবরোধ রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের উন্মোক্ত বাজেট ঘোষণা লোহাগড়ায় ইউপি চেয়ারম্যান বোরহান কর্তৃক বিএমএসএস’র মানববন্ধনে হামলার চেষ্টা রামপাল পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নব নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের পরিচিত সভা অনুষ্ঠিত পটিয়ায় বৌদ্ধ ঐক্য ফাউন্ডেশন  অভিষেক অনুষ্ঠানে বক্তারা সাম্য, মৈত্রী ও আদর্শ অনুসরণ  করে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার আহবান  স্ত্রীর দাবিতে ছাত্র লীগ সভাপতির বাসায় ১ সন্তানের জননীর অবস্থান নিরাপদে আম পৌঁছে দেবে সওদাগর এক্সপ্রেস লিমিটেড এপিবিএনের অভিযানে ৫৬টি ফোনসহ বিকাশের টাকা উদ্ধার ব্যাংক তুমি কার? সরকারের নাকি দালাল চক্রের? হাসপাতালে ভর্তি থেকে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজের স্ত্রীকে খুন ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস উপলক্ষ্যে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নীলফামারীতে পুলিশের অভিযানে মোটরসাইকেল ও গরু উদ্ধার আটক ৩ জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রীয় প্রচার উপ-কমিটির সদস্য হলেন ইমরান হোসেন মুন্না  ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে খাদ্য গুদামে বোরো সংগ্রহের উদ্বোধন ঠাকুরগাঁওয়ে বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন অবহিতকরণ ও বাস্তবায়ন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত নতুন ট্রেন ” নীলফামারী এক্সপ্রেস ” করার দাবিতে মানববন্ধন ঠাকুরগাঁওয়ে পল্লী বিদ্যুতের তার ছিড়ে ১ নারীর মৃত্যু
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:

বরগুনার তিন নদীর নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় ইলিশের অভয়াশ্রম ঘোষণা জরুরি

সাইফুল্লাহ নাসির,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ
আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ড ফিশের একটি গবেষণা দল বরগুনার প্রধান তিনটি নদী পায়রা,বলেশ্বর,বিষখালীসহ সাগর মোহনায় গবেষণা শেষ করে জানিয়েছে,পায়রা,বলেশ্বর ও বিষখালী নদীর নির্দিষ্ট বেশ কিছু এলাকায় ইলিশের অভয়াশ্রম ঘোষণা করা জরুরি। তা না করলে এ এলাকায় ইলিশ প্রাপ্তি ক্রমান্বয়ে কমতে থাকবে।
দেশের ২য় বৃহত্তম মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র বরগুনার পাথরঘাটা বিএফডিসির তথ্যমতে গত চার বছর ধরে মাত্রাতিরিক্ত হারে ইলিশের পরিমাণ কমে তা নেমে এসেছে এক-তৃতীয়াংশে। চার বছরের ব্যবধানে পাল্টে গেছে এ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের চিত্র। এখন আর ট্রলারভর্তি ইলিশ নিয়ে ঘাটে ফিরছেন না জেলেরা। কিছু কিছু জেলে স্বল্প সংখ্যক ইলিশ নিয়ে আসলেও বেশিরভাগ ট্রলারই থাকে ইলিশ শূন্য।
বিএফডিসি’র পরিচালক লেফটেন্যান্ট এম লুৎফর রহমান (বিএন) জানিয়েছেন, প্রতি ১০০ টাকার ইলিশ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে বিক্রি হলে সরকার রাজস্ব পায় ১ টাকা। তবে মাত্রাতিরিক্ত হারে কমে গেছে ইলিশের পরিমাণ। কমে গেছে সরকারের রাজস্ব। তিনি আরও জানিয়েছেন, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে পাথরঘাটা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ৩ হাজার ৭৭৫ মেট্রিক টন ইলিশ উঠেছে। ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে ৭০০ মেট্রিক টন কমে গিয়ে ইলিশ ওঠে ৩ হাজার ২১ মেট্রিক টন। ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ১০০ মেট্রিক টন কমে গিয়ে ইলিশ ওঠে ২ হাজার ৯১১ মেট্রিক টন। আর ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ১ হাজার ৭৫৯ মেট্রিক টন কমে গিয়ে ইলিশ উঠেছে ১ হাজার ১৫২ মেট্রিক টন।
বাংলাদেশ মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানিয়েছেন,বেসরকারি হিসেবে বরগুনা উপকূলের প্রায় দেড় লাখ মানুষ মাছ ধরার পেশায় নিয়োজিত। তাদের মধ্যে শুধু ইলিশ মাছ শিকার করে ৮০ হাজার জেলে। ইলিশশূণ্য হয়ে পড়ছে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর। এখানকার প্রতিটি ট্রলারে ১৮ থেকে ২০ জন জেলে থাকে। একবার সাগরে যেতে অন্তত দেড় থেকে দুই লাখ টাকা ব্যয় হয়। সেই টাকাও উঠছে না। একটু লাভের আশায় বার বার সাগরে যাচ্ছেন জেলেরা। প্রতিবারই লোকসান হয়। ট্রলার মালিকরা এখন জেলেদের বেতনও দিতে পারছেন না।
ওয়ার্ল্ড ফিশের গবেষক মীর মোহাম্মাদ আলী জানান, তিন নদী ও মোহনায় ডিম পাড়তে আসে মা ইলিশ। সেই সময় সেই ইলিশ আটকা পড়ে নদী মোহনার অবৈধ সূক্ষ ফাঁসের জালে। বেশিরভাগ পোনা ইলিশ সাগর থেকে মিঠা পানি ও মাটি খেয়ে বড় হতে চলে আসে তিন নদী ও মোহনায়। তবে সেসব পোনা মাছও আটকা পড়ে এসব জালে। তাই বছরের পর বছর কমে আসছে ইলিশের পরিমাণ। এমন অবস্থা চলতে থাকলে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে ইলিশ পাওয়া যাবে না। তাই দ্রুত এ এলাকায় ইলিশের অভয়াশ্রম ঘোষণা করা জরুরি।
বরগুনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার দেব জানিয়েছেন,পায়রা,বলেশ্বর ও বিষখালী নদীকে অভায়াশ্রম ঘোষণা করার জন্য ইতিমধ্যে প্রাথমিকভাবে মৎস্য অধিদপ্তরকে জানানো হয়েছে, শীঘ্রই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Our Like Page